ঝামেলা ছাড়াই সবচেয়ে সহজ ও সঠিক ইঙ্কজেট প্রিন্টারে কালি রিফিল করুন আর ধুমছে প্রিন্ট করুন, হাতপা ঘর দোর জামাকাপড় নোংরা হবেনা, প্রিন্টে ও কোন ঝমেলা হবেনা

আমরা অনেকেই প্রিন্ট খরচ কমাতে ইঙ্কজেট প্রিন্টারে কালি রিফিল করে ব্যাবহার করি । যারা নতুন তারা অনেকেই কালি রিফিল করতে গিয়া নানান ঝামেলায় পড়ি ।
যেমন
প্রিন্ট করার পর দেখা যায় কোন কালার আসছে কোন কালার আসে না অথচ প্রিন্টারের কার্টিজের হেড দিয়া কালি চুইএ পড়ে যাচ্ছে আবার কখনো কখনো হেড দিয়ে কালি আসে না । এসময় আমরা কার্টিজ ঝাঁকিয়ে ঘরবাড়ি জামাকাপড় কালি দিয়া একাকার করে দেই । এছাড়াও দেখা যায় সব ঠিক থাকলেও আমাদের অজান্তেই কালি পড়ে প্রিন্টারের ভিতর ভরে যায়।
এই সব সমস্যা থেকে একমাত্র মুক্তি দিতে পারে আমার আবিষ্কৃত একটি টেকনিক।
যার নাম অটো রিফিল সিস্টেম।
আমার আবিষ্কৃত বলার কারন।
যারা পুরান তারা জানেন অটো রিফিল সিস্টেমে যেই হাতিয়ার গুল লাগে সেগুলো সহজেই পাওয়া যায় না ।
আমার এই পদ্ধতিতে রিফিল করতে শুধু প্রয়োজন হবে অর্ধেক সিরিঞ্জ।
হেহেহে ভাবছেন মজা করছি ?
না ।
একটা সিরিজের পিস্টন তা খুলে নিলেই তো অর্ধেক হয়ে যায়।
আর লাগবে ভালো মানের একটা কালি।
প্রিন্টারের শো-রুমে অরিজিনাল কালি পাবেন।
দাম ৪০০ থেকে ৮০০ টাকার মত।
কমদামের ভালো মানের চায়নিজ কালি হল কালারফ্লাই ইপি-ডাই কালি ।
এটি ইউনিভার্সাল কালি তাই যেকোনো ইঙ্কজেট  প্রিন্টারে ব্যাবহার করা যাবে ।
ঢাকার নিলক্ষেতে প্রতি বোতল ৬৫ টাকা ।
স্থানভেদে কমবেশি হতে পারে ।
যেমন আমার পরিচিত একটি অনলাইন শপ এই কালি রয়েছে যেখানে এই বোতলের দাম ২০০ টাকা করে ।
এই কালি কেউ অনলিনে বিক্রি করে না ।
তাছাড়া কুরিয়ার ফাঁকি দিয়া প্রিনটারের কালি পাঠাতে হয় তাই ২০০ টাকা দাম ।

কালি রিফিল করার আগে খেয়াল রাখতে হবে

যদি কার্টিজটি সচল থাকে মানে অনেকদিন ফেলে রাখা কার্টিজ না হয় তাহলে পরিস্কার নরম কাপড়কে গরম পানিতে ভিজিয়ে কার্টিজের হেড মুছে নিন ।

আর যদি কার্টিজটি কালি শেষ হওয়ার পর কয়েকদিন ফেলে রাখা হয় তাহলে কার্টিজটির হেড চুলা থেকে উঠানো গরম পানিতে পানি ঠাণ্ডা হওয়া পর্যন্ত চুবিয়ে রাখতে হবে। ফলে হেডে আটকে থাকা শুকনো কালি গলে বের হয়ে হেডজ্যাম ঠিক হয়ে যাবে।

কিভাবে প্রিন্টারের কার্টিজে কালি রিফিল করবেন ?


একটা নরম পরিস্কার কাপড় নিন।

একটা সিরিঞ্জ থেকে পিস্টনটি খুলে নিন।

কার্টিজের ছিদ্রের উপর থেকে স্টিকার সরান।

কোন ছিদ্র কোন কালার কালির খুজে বের করুন।

কালির বোতলের মুখ খুলুন।





সিরিঞ্জ এ কালি ভরুন।
এবার কার্টিজের নির্দিষ্ট  কালারের ছিদ্রে সিরিঞ্জ ঢুকান
কার্টিজ পুরো কালি চুষে নেয়া পর্যন্ত অপেক্ষা করুন
এভাবে সব কালারের কালি রিফিল করুন




অনেক প্রিন্টার রিফিল করার পর পিসি স্ক্রিনে প্রিনটারের ড্রাইভার এর ড্যাশবোর্ডে কালির লেভেল দেখা যায় না ।
তাই সব কালারের কালি একই পরিমানের রিফিল করতে হবে ।
যেমন
নতুন মডেলের এইসপি, এপসন, কেনন ইঙ্কজেট প্রিন্টার কালার কার্টিজে ৩ মিলির বেশি কালি রিফিল করা যায় না।
আর কালো কার্টিজে আনুমানিক ৯ মিলি কালি ঢুকানো যায়
এর বেশি অতিরিক্ত কালি রিফিল করলে কালি হেডের নিচ দিয়া চুইয়ে পড়ে যাবে ।
যদি সিরিঞ্জ দিয়ে কালি ইঞ্জেকট পুশ করার মত রিফিল করেন তাহলে কার্টিজে বাতাস ঢুকে যাবে।
সুতরাং আমার সিখান সিস্টেমে কালি রিফিল করলে কোন ঝামেলায় পড়তে হবে না।
কালি ঢুকানোর কার্টিজ প্রিন্টারে লাগিয়ে ১২ ঘণ্টা অপেক্ষা করবেন ১২ ঘণ্টা পর প্রিন্টার অন করবেন। নাহলে কালি ঠিক মত হেডে আসবেনা।


নিচের ভিডিওগুলো দেখে আরো ভালো ভাবে শিখতে পারবেন 


Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

0
    0
    Your Cart
    Your cart is emptyReturn to Shop