ইঙ্কজেট প্রিন্টারের লাল বাতি জ্বলে এবং নিভে এর সমাধান কি ?

ইঙ্কজেট প্রিন্টার প্রিন্টারের কার্টিজ যদি শুকিয়ে যায় তাহলে লাল বাতি জ্বলবে এছাড়া যদি কালি শেষ হয়ে যায় তাহলে লাল বাতি জ্বলবে না যদি কাঠের মধ্যে যদি কাঠের মধ্যে এবং প্রিন্টার কানেকশন মধ্যে যদি কোন ধরনের ময়লা যাবে তাহলে লাল বাতি জ্বলবে আবার যদি কোন ধরনের কালি কালি যদি খারাপ হয় অথবা যদি অন্য কোন সমস্যা হয় যেমন
পেপার দেন হয়ে গেলে জ্যাম বেঁধে গেলে তাহলে হালাল পথে চলতে থাকে অথবা অন্য অনেক কারণ অনেকগুলো কারণ হয়েছে সবগুলো কারণে সমাধান আমরা একে একে দিয়ে থাকবো প্রথমেই বলছি যদি আপনার প্রিন্টারে প্রিন্ট যদি অনেকদিন ইউজ না করা হয় তাহলে আপনি বুঝতে পারবেন যে আপনার এই প্রিন্টারের কার্ট্রিজের কালি গুলো শুকিয়ে গেছে যদি করেন তাহলে সেটা দেখতে হবে
যদি অল্প কিছুদিন ভাগ্নির প্রেম হলো না করে থাকেন তাহলে একটি একটু গরম পানিতে একটা রুমাল অথবা যেকোন পরিষ্কার নরম কাপড় থাকে পানিতে ভিজিয়ে গরম পানিতে বিছানোর পর এরপরে কাটেনি প্রিন্টার থেকে প্রিন্ট প্রাইস খোলার পর সেই নির্দেশের এবং কানেক্টরগুলো যেগুলো আপনার প্রিন্টারের সাথে বিজ্ঞানের সাথে লাগানো থাকে সেই কানেক্টরগুলো আপনি বলছেন প্রিন্টারের কার্টিজ এবং গ্যারেজের কানেক্টরগুলো ভালোভাবে বুঝে নিতে হবে এতে হবে আপনার প্রিন্টারের কার্টিজের মধ্যে যদি কোন ধরনের ময়লা-আবর্জনা আটকে থাকে তবে সেসব মনের পরিষ্কার হয়ে যাবে এবং সেই সাথে আপনার প্রিন্টারের কার্টিজের কানের মধ্যে যদি কোন ধরনের কালকে থাকে সেগুলো সরে যাবে এরপর আপনাকে কি করতে হবে প্রিন্টারের পাওয়ার বাটন এবং ক্রস বাটন একসাথে চেপে ধরে 15 সেকেন্ড পর সেটাকে ছেড়ে দিতে হবে একটা বেস্ট ফ্রেন্ড হবে সেই দিনটাকে একটা প্রিন্ট হবে সে প্রেম ব্যাপারটাকে দেখতে হবে সেখানে আপনার ব্যাপার টাকে দেখতে হবে সেজন্য সব ধরনের কালি এসেছে কিনা যদি মনে হয় কিছু কিছু কালি আপনার ঠিকমতো আসে নাই তাহলে বুঝতে হবে আপনার গানটা অনেক শুকিয়ে গেছে যদি হয়ে যায় তাহলে বুঝতে হবে তখন তাহলে আপনাকে নিতে হবে গরম পানিতে চুবিয়ে রাখতে হবে যতদিন পর্যন্ত যতক্ষণ পর্যন্ত গরম পানি ঠান্ডা ঠান্ডা হয়ে গেলে কাকে পানি থেকে উঠিয়ে সুন্দর করে টিস্যু দিয়ে পানি গুলো চুষে খেতে হবে তারপর একটা সময় দেখা যাবে যখন বুঝবে তখন সেই ভালোভাবে শুকিয়ে প্রিন্টারের কার্টিজের ইনস্টল করতে হবে আবার পাওয়ার বাটন একসাথে চেপে ধরে
যদি মনে করেন কালি শেষ হয়ে গিয়েছে তাহলে প্রিন্টারের কার্টিজ টাকে খুলে কার্টিজে কালি রিফিল করেন কালি রিফিল এর সর্বশ্রেষ্ঠ পদ্ধতিতে আমার আবিষ্কৃত এই পদ্ধতিতে আমি দেখিয়েছি এটা আমার ফটো এটা কে অটলবিহারী বলা হয় এবং পরিস্থিতির সৃষ্টি আমি অনেকগুলো অটোমেটিক এসএমএস গুলো সবগুলো আমাদের হাতের নাগালে নাই যার কারণে আমাদেরকে অনেক টাকা পয়সা খরচ করতে হয় সেজন্য আমি যে সিস্টেমে আবিষ্কার করেছিলেন আপনাকে কোন ধরনের টুলস ইউজ করতে হবে না এবং এসব বাজারে কিনতে পাওয়া যায় দেখা যায় অনেকেই কার্টিজে কালি রিফিল করার পর একটা কার্টুন সেকশন টুলস হাতিয়ার বলা হয় চোখ দিয়ে পানি বের করে নিয়ে নেওয়া হলে তাদের একটা লেভেল ঠিক হয় আমার এই পদ্ধতিতে আপনাকে এই ধরনের কোন ধরনের ঝামেলায় যেতে হবে না শুধুমাত্র আপনাকে কাটি যেখানে শুধুমাত্র ফোন করাটা যদি ভালোভাবে করতে পারেন তাহলে কোন ধরনের আপনাকে ঝামেলা পোহাতে হবে না জানলে গুলো আপনাদের মনে হয় হয়ে থাকে অনেক ধরনের ঝামেলা হয়ে থাকে যেমন আপনার হাত-পায়ের দাগ লেগে যায় গত ময়লা হয়ে যায় এছাড়াও যদি না হয় তাহলে আপনার কাছে বিরক্ত হয়ে যায় সমস্যা যদি আপনি সমস্যার একটা সমাধান সেটা হচ্ছে আমার পদ্ধতিতে যদি করে থাকেন তাহলে কখনোই আপনার সমস্যা কি পড়তে হবে না আপনাকে শুধুমাত্র একটা প্রয়োজন হবে সেটা ব্যবহার করার জন্য নির্দিষ্ট ঢুকাতে হবে এরপর আপনি দেখবেন

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

0
    0
    Your Cart
    Your cart is emptyReturn to Shop